ওয়ালটন প্রথম বিভাগ দাবা লিগ ২৩ ফেব্রুয়ারি

ভোরের বাংলাদেশ ডেস্ক ঃ

ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ও বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে
শুরু হতে যাচ্ছে ‘ওয়ালটন প্রথম বিভাগ দাবা লিগ-২০২১’। প্রতিযোগিতার বিষয়ে বিস্তারিত জানানোর
জন্য আজ বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের পুরাতন ভবনের দাবা ক্রীড়া কক্ষে এক
সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক (গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস,
মার্কেটিং) এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহ-সভাপতি কে এম
শহিদউল্যা, বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও বিশ^ দাবা সংস্থার ফিদে এশিয়ান জোন
৩.২ এর প্রেসিডেন্ট আন্তর্জাতিক অর্গানাইজার সৈয়দ শাহাব উদ্দিন শামীম, বাংলাদেশ দাবা
ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক ও দাবা লিগ কমিটির সম্পাদক মাসুদুর রহমান মল্লিক দিপু ও
আন্তর্জাতিক দাবা বিচরাক মো. হারুন অর রশিদসহ অন্যান্যরা।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় প্রথম বিভাগ দাবা লিগ একটি দলগত দাবা ইভেন্ট। এতে ১২টি দল
অংশগ্রহণ করবে। যার মধ্যে ২টি দল ২০২০ সালের দ্বিতীয় বিভাগ দাবা লিগ হতে উন্নীত হয়েছে এবং
২টি দল প্রিমিয়ার ডিভিশন থেকে রেলিগেটেড হওয়া।
অংশ নিতে যাওয়া দলগুলোর মধ্যে রয়েছে- ১. মানহাস ক্যাসল চেস ক্লাব, ২. সুলতানা কামাল স্মৃতি
পাঠাগার, ৩. ঢাকা নাইটস্ চেস ক্লাব, ৪. খেলাঘর দাবা সংঘ, গোপালগঞ্জ, ৫. বসির মেমোরিয়াল চেস
ক্লাব, ৬. মীর চেস ক্লাব, ৭. অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড দাবা দল, ৮. ক্যাসপারভ চেস ক্লাব, ৯. ঢাকা
চেস ক্লাব ১০. রূপালী ব্যাংক ক্রীড়া পরিষদ, ১১. ইসফট এরিনা চেস ক্লাব (দ্বিতীয় বিভাগ হতে
উন্নীত) এবং ১২. মনির্ং গ্লোরী চেস ক্লাব, কুষ্টিয়া (দ্বিতীয় বিভাগ দাবা লিগ হতে উন্নীত)।
আরো জানানো হয়- ম্যানহাস ক্যাসল চেস ক্লাব সোনারগাঁও চেস ক্লাবের, রূপালী ব্যাংক ক্রীড়া
পরিষদ লিজেন্ড ফারাজ আয়াজ দাবা টিমের এবং ঢাকা চেস ক্লাব দেবদাস বিশ^াস স্মৃতি সংসদের
স্বত্ব গ্রহণ করে প্রথম বিভাগ দাবা লিগে অংশগ্রহণ করছে।
প্রতিটি দলে ৪ জন নিয়মিত ও ২ জন অতিরিক্ত খেলোয়াড় থাকবে। লিগের খেলা রাউন্ড-রবিন লিগ
পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম বিভাগ দাবা লিগ চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্স আপ দল ২০২১ সালের
প্রিমিয়ার বিভাগ দাবা লিগে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে এবং সর্বনিম্ন স্থান পাওয়া দুটি দল দ্বিতীয়
বিভাগে নেমে যাবে।
এবারের ওয়ালটন প্রথম বিভাগ দাবা লিগের চ্যাম্পিয়ন, রানার্স-আপ ও তৃতীয় স্থান অধিকারী দলকে
অর্থ পুরস্কার, ট্রফি, মেডেল ও ওয়ালটন সামগ্রী প্রদান করা হবে। চ্যাম্পিয়ন দল ৫০ হাজার,
রানার্স-আপ দল ৩০ হাজার এবং তৃতীয় স্থান প্রাপ্ত দল ২০ হাজার টাকা প্রাইজমানি পাবে। এছাড়া
প্রত্যেক বোর্ডের পারফমেন্সের উপর ভিত্তি করে খেলোয়াড়দের বোর্ড পুরস্কার দেয়া হবে।
সংবাদ সম্মেলনে এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সঙ্গে
অনেকদিন ধরেই আমরা ওয়ালটন পরিবার কাজ করছি। দাবা ফেডারেশনের সঙ্গে ওয়ালটন গ্রুপের

একটি আত্মিক সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। বুদ্ধিদীপ্ত সমাজ গঠন এবং সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ
হিসেবে আমরা ওয়ালটন পরিবার দাবাকে পৃষ্ঠপোষকতা করছি। আমরা সব সময়ই দাবার পাশে থাকার
চেষ্টা করছি। যথারীতি এবারও প্রথম বিভাগ দাবা লিগের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে যাচ্ছি আমরা ওয়ালটন
পরিবার।’
সৈয়দ শাহাব উদ্দিন শামীম ওয়ালটন গ্রুপকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘আমি প্রথমই ধন্যবাদ ও
কৃতজ্ঞতা জানাই ওয়ালটন গ্রুপের প্রতি। বিশেষ করে ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক এফএম
ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)-কে। ওয়ালটন গ্রুপ অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে ২০১৪ সাল থেকে নিয়মিত
দাবা খেলার পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে। এ বছর ইতিমধ্যে তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় মার্সেল দ্বিতীয়
বিভাগ দাবা লিগ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।’
এই প্রতিযোগিতার মিডিয়া পার্টনার এটিএন বাংলা, এটিএন নিউজ ও আরটিভি। রেডিও পার্টনার
রেডিও টুডে। অনলাইন পার্টনার জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল রাইজিংবিডি.কম।

Pin It

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *