পাকিস্তানে এ মাসেই টিকা পাঠাবে চীন

ভোরের বাংলােদশ ডেস্ক ঃ
পাকিস্তানকে ত্রাণ হিসেবে টিকা পাঠাবে বলে জানিয়েছে চীন। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনইং স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার এক ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘পাকিস্তানের ভাই ও বোনদের সমর্থন দিতে চীনের সরকার ত্রাণ হিসেবে টিকা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাকিস্তানে টিকা রপ্তানির প্রক্রিয়া গতিশীল করতে চীনের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমন্বয়ের কাজ চলছে।’

জিও টিভির আজ শনিবারের খবরে জানা যায়, চীনের স্টেট কাউন্সিলর ওয়াং ই পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশিকে টিকা পাঠানোর সিদ্ধান্তের বিষয়টি জানিয়েছেন।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া বলেছেন, পাকিস্তান ও চীনের মধ্যে ঐতিহ্যগতভাবে পারস্পরিক সহযোগিতার সম্পর্ক রয়েছে। প্রয়োজনের সময় এক দেশ অন্য দেশের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়ায়। তিনি আরও বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের সময় থেকেই চীন ও পাকিস্তান একসঙ্গে সমস্যা মোকাবিলার চেষ্টা করছে।

হুয়া আরও জানান, ফোনালাপে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ ও সহযোগিতামূলক সম্পর্ক জোরদারের কথা বলেন। তিনি বলেন, ৩১ জানুয়ারির মধ্যে পাকিস্তানে করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম চালান পৌঁছাবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় পাকিস্তানের ন্যাশনাল কমান্ড অ্যান্ড অপারেশন সেন্টারের প্রশংসা করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি। মিডিয়া ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, করোনার টিকা পেতে চীনের সঙ্গে পাকিস্তানের ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। তিনি বলেন, চীনের সঙ্গে টিকার প্রয়োজনীয়তা নিয়ে তাঁর দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান টিকা পেতে চীনের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতে পরামর্শ দিয়েছেন।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ৩১ জানুয়ারির মধ্যে পাকিস্তানে পাঁচ লাখ টিকা পাঠাবে চীন। ফেব্রুয়ারি মাসে চীন থেকে আরও বেশি টিকা আসতে পারে।
শাহ মেহমুদ কোরেশি দাবি করেন, পাকিস্তান করোনাভাইরাসের সংকটময় পরিস্থিতি সফলভাবে মোকাবিলা করতে পেরেছে। চীনকে জানানো হয়েছে পাকিস্তানের পাঁচ লাখের বেশি টিকা প্রয়োজন। পাকিস্তানে আরও ১১ লাখ টিকা প্রয়োজন বলে চীনকে জানানো হয়েছে।

Pin It

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *