রাশিয়ায় নতুন করে আবারও পুতিনবিরোধী বিক্ষোভ , হাজারের বেশি আটক

ভোরের বাংলাদেশ ডেস্ক ঃরাশিয়ায় নতুন করে আবারও সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ থেকে এক হাজারের বেশি মানুষকে আটক করা হয়েছে। একটি পর্যবেক্ষণ সংস্থা জানিয়েছে, দেশটির বিরোধী নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনিকে কারাগারে বন্দি করে রাখার বিরুদ্ধে রাজপথে নেমেছেন তার সমর্থকরা।

দীর্ঘদিন ধরেই রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, সমাবেশ করছেন রাশিয়ার বিরোধী দলের সমর্থকরা। রোববার দেশটিতে নতুন করে বিক্ষোভ শুরু হলে মস্কোর পুলিশ মেট্রো স্টেশন বন্ধ করে দিয়েছে এবং সিটি সেন্টারে লোকজনের চলাচল সীমাবদ্ধ করে দিয়েছে।

সম্প্রতি দেশে ফেরার পরই আটক হন বিরোধী নেতা নাভালনি। এর আগে নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করে হত্যার চেষ্টা করা হলে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় এই রুশ নেতাকে জার্মানিতে স্থানান্তর করা হয়। তার শারীরিক অবস্থার উন্নতির পর বেশ কিছুদিন আগে তিনি দেশে ফেরেন। এরপরই পুতিন সরকার তাকে আটক করে কারাগারে পাঠায়।

অর্থ আত্মসাতের একটি মামলার বিষয়ে নাভালনির নিয়মিত পুলিশের কাছে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সম্প্রতি তিনি তা অমান্য করায় তাকে আটক করা হয়েছে বলে দাবি কর্তৃপক্ষের। কিন্তু অনেকদিন ধরেই চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে ছিলেন তিনি। তাই তাকে এখন আটক করা অবৈধ বলে মনে করেন তার সমর্থকরা।

নাভালনি নিজেও দাবি করেছেন যে, তার দেশের বাইরে থাকার কথা কর্তৃপক্ষ জানার পরেও তাকে যেভাবে হেনস্তা করা হচ্ছে তা পুরোপুরি অবৈধ। গত আগস্টে তাকে নোভিচক বিষ প্রয়োগের পর কয়েক মাস ধরে তিনি জার্মানিতে চিকিৎসার পর সম্প্রতি দেশে ফেরেন।

নাভালনি তার এক ডকুমেন্টারিতে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের একটি বিলাসবহুল প্রাসাদের ভিডিও প্রকাশ করেছেন। ওই প্রাসাদের মূল্য ১৩৭ কোটি ডলার এবং ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অঙ্কের ঘুষ হিসেবে পুতিনকে এই অর্থ প্রদান করা হয়েছে বলে দাবি করেন নাভালনি।

তবে এই প্যালেসের মালিক পুতিন নয় বলে দাবি করেছে ক্রেমলিন। কৃষ্ণ সাগরের উপকূল সংলগ্ন বিশাল প্রাসাদটি সরকারি নিরাপত্তা কর্মকর্তারা পাহাড়া দিচ্ছেন এমন দাবিকে ‘পুরোপুরি অর্থহীন’ বলে দাবি করেছেন ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ। নাভালনির ডকুমেন্টারিতে দাবি বলা হয়েছে যে, ওই প্রাসাদের এলাকা ইউরোপের দেশ মোনাকোর চেয়ে ৩৯ গুণ বড়। বার্লিন থেকে রাশিয়ায় ফিরে নাভালনি আটক হওয়ার পর পরই ওই ভিডিওটি প্রকাশ করে তার টিম। ইতোমধ্যেই ওই ভিডিওটি ১০ কোটি বারের বেশি দেখা হয়েছে।

Pin It

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *