‘অসুস্থ পরীমনিকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিল পুলিশ’

ঢাকা: ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ জানাতে চার দিন আগে চিত্রনায়িকা পরীমনি বনানী থানায় গিয়েছিলেন। তাকে অসুস্থ দেখে পুলিশ সদস্যরা রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে নিয়ে যান বলে জানিয়েছেন বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আজম মিয়া।

রোববার (১৩ জুন) দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে অভিনেত্রী পরীমনি মোবাইল ফোনে থানায় ও হাসপাতালে যাওয়ার বিষয় নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, গত চার দিন আগে ভোর বেলার দিকে আমি বনানী থানায় গিয়েছিলাম। সেখানে এক দায়িত্বরত পুলিশের সঙ্গে কথা বলি। আমার কথাবার্তা শুনে ওই পুলিশ কর্মকর্তা আমাকে বলেন—আপনি শান্ত হোন, বাসায় যান, সকাল দশটায় ওসি সাহেব এলে বিষয়টি জানানো হবে।

এ বিষয়ে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আজম মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, ৩/৪ দিন আগে চিত্রনায়িকা পরীমনি ভোর বেলার দিকে বনানী থানায় আসেন। থানার ডিউটি অফিসারের সঙ্গে কথা বলেন। তখন তাকে অসুস্থ অবস্থায় দেখা যায়। পরে বনানী থানা পুলিশ তাকে নিরাপত্তা দিয়ে এভারকেয়ার হাসপাতালে নিয়ে যায়। তাকে বলা হয়— আপনি সুস্থ হলে থানায় আসবেন। কিন্তু তিনি আর যোগাযোগ করেননি, থানায়ও আসেননি।

ওসি আরও বলেন, সেদিন পুলিশকে তিনি (পরীমনি) জানিয়েছিলেন তাকে জোর করে কিছু খাওয়ানো হয়েছে।

রোববার (১৩ জুন) সন্ধ্যায় জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করেন। ফেসবুক পোস্টে তিনি তার জীবন নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন বলেও জানান। ফেসবুক পেজে অভিযোগ তুলে প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি খোলা চিঠি লেখেন পরীমনি। এরপর সাংবাদিকরা যোগাযোগ করলে তিনি তৎক্ষণাৎ তার নিজ বাসায় একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে পরীমনি বলেন, ‘গত চারদিন ধরে একজন সাধারণ মেয়ে হিসেবে আমি দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। কিন্তু কারো হেল্প পাইনি। সবাইকে বলেছি, আমি সুইসাইড করার মতো মেয়ে না। যদি আমি মরে যাই, মনে করবেন আমাকে মেরে ফেলা হয়েছে। আর আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ আপনারা আমাকে হত্যার বিচার করবেন। ’

Pin It

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *