গাড়িতে বসে সিট বেল্ট না বাঁধায় ঋষি সুনাককে জরিমানা

সিট বেল্ট না বেঁধে চলন্ত গাড়িতে ভ্রমণ এবং সেই ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করায় আগেই তোপের মুখে পড়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। এবার গাড়িতে সিট বেল্ট না পরায় তাকে জরিমানার মুখে পড়তে হলো।

ল্যাঙ্কাশায়ার পুলিশ জানিয়েছে, তারা লন্ডনে ৪২ বছর বয়সী এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট শাস্তির শর্তসাপেক্ষ আদেশ জারি করেছেন। খবর বিবিসির।

ব্রিটেনের আইন অনুযায়ী, চলন্ত গাড়িতে ভ্রমণের সময় সিট বেল্ট না পরাকে অপরাধ হিসেবে ধরা হয়। এক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক ১০০ পাউন্ড জরিমানা হতে পারে। আর বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ালে শাস্তিস্বরূপ জরিমানার পরিমাণ হতে পারে ৫০০ ইউরো পর্যন্ত।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, মূলত ভিডিও ধারণ করার জন্য তিনি নিজেই সিট বেল্ট সরিয়েছিলেন। সেই ভিডিও তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে শেয়ার করার পর এ নিয়ে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়। এক পর্যায়ে বিষয়টির জন্য তিনি ক্ষমাও চান।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) উত্তর ইংল্যান্ডে সফরকালে সিট বেল্ট না পরে চলন্ত গাড়িতে ভিডিও ধারণ করেন ঋষি সুনাক।

দেশটির প্রধানমন্ত্রীর সড়ক আইন ভঙ্গ করা নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছেন বিরোধীদল লেবার পার্টির নেতারা। দলটির মুখপাত্র বলেন, কীভাবে সিট বেল্ট পরতে হয়, ডেবিট কার্ড, ট্রেন সার্ভিস ব্যবহার করতে হয়, কীভাবে অর্থনীতি ও দেশ পরিচালনা করতে হয়, ঋষি সুনাকের তা জানাই নেই।

এই রকম আরো কিছু খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button