গোপালপুরে দপ্তরীর হাতে শিক্ষক লাঞ্চিত

মো. সেলিম হোসেন, গোপালপুর-টাঙ্গাইল:
গোপালপুর উপজেলার সেনেরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম প্রহরী আল-আমিনের হাতে ওই বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক ইউসুফ আলী লাঞ্চিত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার সকাল ১০টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী শিক্ষক দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ মল্লিকের কাছে দপ্তরী কাম প্রহরী কর্তৃক শারীরিক লাঞ্চিত হওয়ার সুবিচারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য একটি লিখিত অভিযোগ করেন।
জানা যায়, প্রতিষ্ঠান চলাকালীন সময় দপ্তরী আল-আমিনকে ওই শিক্ষক বিদ্যালয়ের আঙ্গিণা ও ওয়াশরুম পরিস্কার করে খাওয়ার জন্য পানি আনতে বলেন। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষককে অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ করে ও লাঠি নিয়ে মারতে আসে। প্রতিবাদ করায় উল্টো সে ওই শিক্ষককে কাজগুলো করতে বলে। না হলে ঠেসে টয়লেট খাওয়ানোসহ তাকে অন্য বিদ্যালয়ে বদলী করে দেওয়ার হুমকি দেয়।

এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকদের সাথে অসদাচরণ করাসহ বিদ্যালয়ের অব্যবহৃত সরঞ্জাম (পুরাতর বই, বেঞ্জ, সিমেন্টের বস্তা, টিউবওয়েলের পাইপ ও বারান্দা টিন) বিক্রি করে অর্থ আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে জানতে দপ্তরী আল আমিনের ব্যবহৃত মুঠোফোনে বহুবার চেষ্টা করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

প্রধান শিক্ষক আঃ খালেক ও সহকারি শিক্ষক জাকিয়া সুলতানা বিদ্যালয়ের আঙ্গিণা ও ওয়াশরুম পরিস্কার করা নিয়ে দপ্তরীর সাথে সহকারী শিক্ষকের কথা কাটাকাটির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার রোকনুজ্জামান  জানান, বিষয়টি আমাকে মৌখিক ভাবে জানানো হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউএনও মো. পারভেজ মল্লিক লিখিত অভিযোগ পেয়ে জানান, ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ছবির ক্যাপশন- দপ্তরী কাম প্রহরীর হাতে লাঞ্চিত সহকারি শিক্ষক ইউসুফ।

এই রকম আরো কিছু খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button