তাহিরপুর সীমান্তে চোরাচালান বৃদ্ধি: ১০বোতল মদ জব্দ

প্রতিনিধি ,সুনামগঞ্জ:
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্ত দিয়ে বৃদ্ধি পেয়ে মদ, গাঁজা, ইয়াবা, কয়লা, চাল ও
পাথর পাচাঁর। সীমান্ত চোরাচালানীরা নিজেদেরকে বিজিরি সোর্স পরিচয় দিয়ে
সরকারে লক্ষলক্ষ টাকা রাজস্ব ফাঁকি লাউড়গড়, চাঁনপুর, টেকেরঘাট, বালিয়াঘাট ও
চারাগাঁও এলাকা দিয়ে এসব মালামাল ভারত থেকে পাচাঁর করছে। গতকাল
বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) রাত অনুমান ১টার সময় ১০ বোতল ভারতীয় মদ জব্দ করেছে
বিজিবি।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- প্রতিদিনের মতো গতকাল বৃহস্পতিবার (১৫
এপ্রিল) রাত অনুমান ১টার সময় তাহিরপুর উপজেলার চারাগাঁও বিজিবি ক্যাম্পের
সামনে অবস্থিত এলসি পয়েন্টসহ বাঁশতলা ও লালঘাট এলাকা দিয়ে বিজিবি
ক্যাম্পের এফএস আফসারের সহযোগীতায় সোর্স শফিকুল ইসলাম ভৈরব ও রমজান
মিয়া পৃথক ভাবে ভারত থেকে বিপুল পরিমান চাল, কয়লা, মদ ও ইয়ারা পাচাঁর করে।
এসময় চারাগাঁও সীমান্তের ১১৯৫ এর ৪ এস সীমানা পিলার হতে ৫০ গজ দূরে
পরিত্যক্ত অবস্থায় ১০বোতল ভারতীয় মদ পায় টহলরত বিজিবি সদস্যরা। যার মূল্য
১৫হাজার টাকা করে জানিয়েছে বিজিবি। কিন্তু মাদক ব্যবসায়ী কিংবা
সোর্স পরিচয়ধারী চোরাচালানীদেরকে কখনোই ধরতে পারেনা তারা। অথচ
সুনামগঞ্জ জেলা শহর থেকে র‌্যাব ও ডিবি পুলিশ তাহিরপুর সীমান্ত এলাকায় গিয়ে
অভিযান চালিয়ে প্রায় সময় বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্যসহ ব্যবসায়ীদেরকে
গ্রেফতার করছে।
অপরিদিকে লাউড়গড় সীমান্তের যাদুকাটা নদী দিয়ে ওপেন ভারত থেকে কয়লা ও পাথর
আনছে সোর্স আমিনুল মিয়া, নুরু মিয়া, এরশাদ মিয়া, জসিম মিয়া ও
রফিকুল মিয়া (নবীকুল) গং। একই ভাবে বালিয়াঘাট, টেকেরঘাট ও চাঁনপুর
সীমান্ত দিয়ে সোর্স ইয়াবা কালাম, ইসাক মিয়া, কামাল মিয়া ও আবু বক্কর
রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে কয়লার সাথে মদ, গাঁজা, ইয়াবা পাচাঁর করছে।
তাদের নেতৃত্বে ভারত থেকে অবৈধ ভাবে কয়লা ও মাদক পাচাঁর করতে গিয়ে
বিএসএফের তাড়া খেয়ে সম্প্রতি ২ শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে বলে
জানা গেছে।

এব্যাপারে সুনামগঞ্জ ২৮ব্যাটালিয়নের বিজিবি অধিনায়ক তসলিম এহসান
সাংবাদিকদের বলেন- সীমান্ত চোরাচালানের সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা
চলছে। আটককৃত মদ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ে জমা করার কার্যক্রম
পক্রিয়াধীন রয়েছে।

এই রকম আরো কিছু খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button