সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় ৩ বন্ধু রিমান্ডে

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া- প্রতিনিধি,সুনামগঞ্জ:
সুনামগঞ্জ সীমান্তে জাহাঙ্গীর আলম নামের এক যুবককে গলাকেটে
নৃশংসভাবে হত্যা করার অভিযোগে গ্রেফতারকৃত ৩ বন্ধুকে আদালতের
মাধ্যমে ২দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত বন্ধুরা হলো-
জেলার তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের কড়ইগড়া গ্রামের মৃত
আব্দুল বারিকের ছেলে তৌহিদুল ইসলাম (২৮), পাশর্^বর্তী মাহারাম
গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে আহসান হাবিব (২২) ও একই গ্রামের
হারুনুর রশিদের ছেলে সুলেমান মিয়া (২৪)।
আজ মঙ্গলবার (২৫ মে) দুপুরে সুনামগঞ্জ আদালতের পুলিশের পরিদর্শক
সেলিম নেওয়াজ সাংবাদিকদের জানান- পুলিশের পক্ষ থেকে
গ্রেফতারকৃত ৩ বন্ধুর ৭দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছিল।
আমলগ্রহণকারী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের তাহিরপুর
জোনের বিচারক মোঃ খালেদ মিয়ার ২দিনে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।
এব্যাপারে তাহিরপুর থানার ওসি আব্দুল লতিফ তরফদার বলেন-
গ্রেফতারকৃত ৩ বন্ধু দায়েরকৃত হত্যা মামলার এজহারভুক্ত আসামী।
তারা ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় সীমান্তের কড়ইগড়া-রাজাই এলাকা
থেকে সুকৌশলে গ্রেফতার করা হয়েছে। জাহাঙ্গীর আলম নামের যুবকের
হত্যাকান্ডের সাথে তারা ছাড়া আরো কেউ জড়িত আছে কিনা তা
জানার চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ, গত শনিবার (২২ মে) সকাল ১০টায় সীমান্তের শান্তিপুর গ্রাম
সংলগ্ন একটি হাওরে জাহাঙ্গীর আলম নামের যুবককে গলাকেটে হত্যা
করে ফেলে রেখে যায় দুবৃত্তরা। এঘটনার প্রেক্ষিতে নিহতের পিতা
মাহারাম গ্রামের মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে

অজ্ঞাত আরো ৮-১০জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের
করেন।

এই রকম আরো কিছু খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button