১৫০ বিঘা জমির তাৎক্ষণিক সেচের ব‍্যবস্থা গ্রহন এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রীর

মণিরামপুর( যশোর

মনিরামপুর উপজেলার খেদাপাড়া ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামের ১৫০ বিঘা ফসলি জমিতে তাৎক্ষণিক সেচের ব‍্যবস্থা গ্রহন করেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি।

শনিবার(২০ ফেব্রয়ারি) মনিরামপুর উপজেলার খেদাপাড়া ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামে স্থানীয় ব‍্যক্তিস্বার্থের বিরোধের জন্য প্রায় ১৫০ বিঘা জমির ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে এই খবর পেয়ে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি ঢাকা থেকে ছুটে আসেন।

কৃষকের দুর্দশার কথা চিন্তা করে
তাৎক্ষণিক ঢাকা থেকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সরেজমিনে পরিদর্শন করে বলেন, জনগন হল আমার মূল শক্তি, জনগনের ভোটে আজ আমি এখানে আসছি।

এসময় ঘটনাস্থলে আসেন মনিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হাসান, সহকারী কমিশনার( ভূমি) বাবু পলাশ দেবনাথ, মনিরামপুর পল্লী বিদুৎ অফিসের জিএম বাবু অরুণ কুমার কুন্ডু।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হাসান ও পল্লী বিদুৎ অফিসের জিএম বাবু অরুণ কুমারকে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন না করায় তাদেরকে ভৎসনা করে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের আহবান জানান তিনি ।

উল্লেখ্য, ভুয়া অভিযোগের ভিত্তিতে মনিরামপুর এর ইউএনও ও পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২ এর মহাব‍্যবস্থাপক সঠিক তদন্ত না করে ১৫০ বিঘা জমির বোরো সেচ পাম্মের বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন করে। ফলে গত ৪/৫ দিনে স্কিমে সেচ সরবরাহ না করার কারনে ফসল নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়।

প্রতিমন্ত্রী তাৎক্ষণিকভাবে নির্দেশনা প্রদান করে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার কৃষকের ধান চাষের জন্য সকল বাধা বিপত্তি অতিক্রম করে কি করলে সুষ্ঠুভাবে কৃষক ঘরে ধান তুলতে পারবে সেই ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেছেন। প্রতিমন্ত্রী নিজে দাঁড়িয়ে থেকে তাৎক্ষণিকভাবে পল্লী বিদুৎ এর সংযোগ দিয়ে অনুমানিক ২০০ কৃষকের মুখে হাসি ফোটান।

আগে কৃষক ধান চাষ করবে, তারপর যদি বিবাদী কোন বাধা দেয় ধান চাষে, তাহলে বিরোধীর বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট বসিয়ে তার জরিমানা ব্যবস্থা করার জন‍্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশনা প্রদান করেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।

সুফলভোগী কৃষক প্রতিমন্ত্রীর প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেছেন, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী আজ আমাদের কৃষকের জন্য যা করলেন তার ঋন আমরা শোধ করতে পারব না।

এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন মনিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.জাকির হাসান,সহকারী কমিশনার( ভূমি) বাবু পলাশ দেবনাথ, , মনিরামপুর পল্লী বিদুৎ অফিসের জিএম বাবু অরুণ কুমার কুন্ডু সহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

এই রকম আরো কিছু খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button